logo
0
item(s)

বিষয় লিস্ট

নাশিদ কামাল এর আজীবন বসন্ত

আজীবন বসন্ত
এক নজরে

মোট পাতা: 201

বিষয়: গল্পগ্রন্থ

  • ৳ 25.00
  • + কার্ট-এ যোগ করুন

হাটহাজারির বাঁকে

 

এঁকেবেঁকে চলছে গাড়িটা চিটাগাং ভাটিয়ারীর পথ দিয়ে জানালা দিয়ে তাকাতেই অপূর্ব সুন্দর দৃশ্যএকপাশে পাহাড়, তারই পাদদেশে টলমলে পানি নদী আর পাহাড়ের অপূর্ব সংমিশ্রণ কী নয়নাভিরাম! হাটহাজারির পথে গাড়িটা মোড় নিল দুইপাশে সারি সারি কাশবন, মিষ্টি পৌষের বাতাসে দুলে দুলে উঠছে পানির রং গাঢ় নীল, কী স্বচ্ছ, সবুজ আরও সবুজ পাহাড়ের গায়ে জঙ্গলের রং মনে মনে ভাবল মিলা, ‘বাংলাদেশে এমন সুন্দর জায়গা আছে! পৃথিবীর আর যে-কোনো দেশে হলে এর চারদিকে পর্যটকদের জন্য সুনির্দিষ্ট জায়গা থাকত ঝাঁকে ঝাঁকে বিদেশীরা এসে উপভোগ করত দেশের রূপ-রস বাংলা মায়ের শ্যামলা ছায়া অথচ এইরকম অনাবিল আনন্দ খুঁজে পেতে মিলাকেই যেতে হয়েছে সুদূর অস্ট্রেলিয়া!’

-বছরই একটি বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে মিলা তার স্বামী দুজনে মিলে গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেন শহরে সেখান থেকে বেড়াতে গেছে তাসমানিয়া তাসমানিয়া অস্ট্রেলিয়ার একটি দ্বীপ অপরূপ সুন্দর, বিশেষ করে মায়ের কাঁখের মতো দেখতে একটি পাহাড় যার নামক্রেডেল মাউন্টেন’— সেই পাহাড়ের কথাই বারবার মনে পড়ল মিলার অনেকটা স্বগতোক্তির মতোই বলে উঠল, ‘ঠিক যেন অস্ট্রেলিয়ার মতো, এই সুন্দর পাহাড় নদীর দৃশ্য

জি ম্যাডাম, ঠিকই বলেছেন, অস্ট্রেলিয়ার মতোই বটে চমকে উঠল মিলা ড্রাইভারের কথা শুনে!

ড্রাইভারের নাম রেজা হোসেন জাতিসংঘের বিশেষ কাজে চিটাগাং এসেছে মিলাকাজের ফাঁকে একটু সময় করে চিটাগাঙে অফিসের গাড়ি নিয়ে বেরিয়েছে হাটহাজারির পথে শুনেছে এখানে গলফ কোর্সটা খুব সুন্দর তাই ইচ্ছে হল একবার ঘুরে আসি ড্রাইভারের সঙ্গে মোটেই আলাপ নেই অস্ট্রেলিয়ার দৃশ্যের সঙ্গে সাদৃশ্য আছে সে-কথায় সায় দিল রেজা হোসেন তার দিকে তাকিয়ে জিজ্ঞেস করল মিলাআপনি অস্ট্রেলিয়া গেছেন?’

জি ম্যাডাম, দেড়মাস অস্ট্রেলিয়াতে ছিলাম

কীভাবে গেলেন?’ মিলা প্রশ্ন করে

এক অস্ট্রেলিয়ান মহিলা এখানে পোস্টিং নিয়ে আসেন আমি তার ড্রাইভার ছিলাম মহিলা আমাকেও খুব পছন্দ করেন, যাবার সময় আমাকে ভিসা করিয়ে নিয়ে গেলেন অস্ট্রেলিয়া

তারপর? চলে এলেন কেন?’ মিলা আরও অবাক হয়

আমি তো কেবল ম্যট্রিক পাস বিদেশী মহিলা আমাকে নিয়ে গেলেন অস্ট্রেলিয়া,

ওখানে তো আমি ভালো চাকরি পাব না এখানে জাতিসংঘে ড্রাইভারের চাকরিতে ভালোই বেতন ওভারটাইম, বোনাস অন্যান্য এলাউন্স, সব মিলিয়ে দশ হাজার হয়ে যায় তাই ওদেশে গিয়েও ফিরে চলে এলাম তাছাড়া বাড়িতে বিধমা মা আছেন

অবস্থায় মিলা বলে উঠল, ‘চলুন চিটাগাং বিশ্ববিদ্যালয়টা দেখতে যাই

গাড়ি চালিয়ে আস্তে আস্তে ঢালু পথে নেমে গেল রেজা হোসেন একদিকে পাহাড়, অন্যদিকে গলফ কোর্স, ওদিকে সূর্যের রক্তিম আভা ছড়িয়ে আছে ভালোই লাগছে - পথে বেড়াতে অনেকক্ষণ পর পর ছোটখাটো দুই-একটা মাটির ঘর কারা থাকে ওখানে, কী তাদের জীবন, সবই জানতে ইচ্ছা করে মিলার শুনেছে গলফ কোর্সে প্রায়ই ঢাকা থেকে লোক ছুটে আসে গলফ খেলতে বিশেষ করে বিদেশীরা সুযোগ পেলেই এখানে গলফ খেলে মিলা নিজে খেলে না, আসলে খেলার নেশা তেমন নেই বললেই চলে, শুধু শরীরচর্চা করতে কিছুক্ষণ হাঁটে সংগীতের নেশা আছে মিলার, গাইবার এবং শুনবার তবে আন্তর্জাতিক সংস্থাতে চাকরি করে তারই বা সময় কোথায়?

ড্রাইভার রেজা হোসেন এবার নিজের থেকেই জানায়, ‘আসলে ম্যাডাম, আমি ভালো পরিবারের ছেলে আমার আপন মামা ইঞ্জিনিয়ার পারভেজ, ঢাকায় থাকেন, আপনি চেনেন?’

না আমার সঙ্গে তেমন পরিচয় নেই, তবে নাম শুনেছিআসলে মোটেই চেনে না মিলা, তবু রেজা হোসেনের মনে আঘাত লাগবে, তাই নাম শোনার ভান করল

আমার বাবা জুটের ফ্যাক্টরিতে কাজ করতে গিয়ে হঠাৎ মারা যান ওনার আশা ছিল আমি ইঞ্জিনিয়ার হব কিন্তু সংসারে ভীষণ অনটন দেখা দিল মামার গাড়িতে গাড়ি চালানো আমি শিখেছিলাম, হঠাৎ করে ক্যানেডিয়ান হাইকমিশনের চাকরিতে দরখাস্ত দিলাম হয়েও গেল সেই থেকে ড্রাইভারি করতে লাগলাম একটাই ছোটভাই, ভালো লেখাপড়া করেছে, এখন বেসরকারিতে চাকরি করে

চিটাগাং বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌছে গেছে গাড়ি দরজায় দাঁড়ানো প্রহরী পরিচয়পত্র চাইল মিলার কাছে আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের কার্ড বের করে দিল মিলা তাতে কোনো লাভ হল না প্রহরী দরজা খুলবে না এমন বিধি-নিষেধ আছে তা আগে জানা ছিল না মিলার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী সে সেখানে এরূপ নিয়ম নেই তাছাড়া পৃথিবীর বহু ইউনিভার্সিটি হারওয়ারড, এম. আই. টি. স্ট্যানফোর্ড, অক্সফোর্ড, কেমব্রিজ দেখেছে মিলা, কোথাও এভাবে পরিচয়পত্র চাওয়া হয়নি কী জানি হয়তো আজ দেখাই হবে না চিটাগাং ইউনিভার্সিটি এমন জানলে কাউকে জানিয়েই আসত মিলা তবু একবার চেষ্টা করে, আচ্ছা এখানে ফোন নেই? কাউকে ফোন করে গেট খোলানো যায় না?’ বলতে গার্ড মাথা নাড়ল উর্ধ্বতন কোনো কর্মকর্তার সঙ্গে মিলিয়ে দিল তাকে মিলা তার পরিচয় দেবার সঙ্গে সঙ্গে গার্ডের হাতে ফোন দিতে বলল গার্ডও নিমেষেই দরজা খুলে দিল যেন সোনার কাঠি রুপার কাঠি বদলানোর মতো অবস্থা! চিচিং ফাঁক হয়ে খুলে গেল চিটাগাং ইউনিভার্সিটির গেট

সংশ্লিষ্ট বই

পাঠকের মতামত
  • Rating Star

    “ ” - Nashid Kamal

রিভিউ লিখুন
রিভিউ অথবা রেটিং করার জন্য লগইন করুন!